মোঃ মনিরুল ইসলাম নাচোল-চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে করোনা ভাইরাসের মধ্যে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ উঠেছিল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এলাকাবাসী ও ভুমি অফিস সুত্রে জানা গেছে নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের ইলামিত্র স্মৃতি বিজড়িত জায়গা কেন্দুয়া ঘাসুড়া হাটের দক্ষিণে সরকারি পাঁকা রাস্তা সংলগ্ন দুইটি বাবলার গাছ ছিলো।সোমবার সকালে সরকারি গাছ নিজের ভেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার গোবরাতলা ইউনিয়নের সর্জন গ্রামের আলহাজ্ব মানসুর আলীর ছেলে মোঃ সাদিকুল ইসলাম সরকারি ঐ গাছ গুলো কেটে নিয়ে বাড়ি চলে যায়। গাছ কাটার খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানা নেজামপুর তহসিলদার নুরুজ্জামানকে অবহিত করেন। পরে তহসিলদার নুরুজ্জামান ঘটনাস্থলে গাছ উদ্ধারে ভূমি অফিসের পিয়ন আলামিন কে পাঠান।

পরে আলামিন ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখে গাছ কেটে বাড়ি নিয়ে চলে গেছে।ঐ ব্যক্তি তার নিজের জমির গাছ কেটেছেন বলে মুঠো ফোনে জানান।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলা ভূমি অফিসারের সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসান সরেজমিনে সরকারি ঐ যায়গা মাপজোঁখ করে দেখেন যে ঐ রাস্তার গাছ গুলো সরকারি জমিতে পড়ছে। গাছ দুটি উদ্ধার করে উপজেলা ভূমি অফিসে আনা হয়েছে। সরকারি গাছ দুটির মূল্য আনুমানিক দশ হাজার টাকা।

এ বিষয়ে উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসান জানান, গত সোমবার দৈনিক ডোনেট বাংলাদেশসহ বেশকটি অনলাইনে গাছ কাটা নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। মঙ্গলবার সকালে জমি মাপজোঁখ করে দেখা যায় রাস্তার গাছ গুলো আসলেই সরকারি জমিতে আছে। যার কারনে বুধবার সকালে সরকারি গাছ গুলো উদ্ধার করে উপজেলা ভূমি অফিসে আনা হয়েছে।

 

কমেন্ট করুন