স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা ভাইরাসের অজুহাতে ভোলাহাট উপজেলায় নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মূল্যের দাম বৃদ্ধি করায় শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৫ ব্যবসায়ীর অর্থদন্ড করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজিবুল আলম নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের দায়িত্বে থেকে ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করেন। প্রথমে ভোলাহাট পুরাতন বাসস্ট্যান্ড বাজারে ও পরে মেডিকেলমোড়ে ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় পিঁয়াজ, রশুনসহ বিভিন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের অতিরিক্ত মূল্য আদায় ও ভোক্তা অধিকার আইন না মেনে পণ্যের দাম উল্লেখ না করায় জরিমানা করেন। অপরদিকে ফলের দোকানে ফলের অতিরিক্ত মূল্য আদায় এবং ভোক্তা অধিকার আইন না মানায় জরিমানা করা হয়। মোট ৫ ব্যবসায়ী উপজেলার বাহাদুরগঞ্জ গ্রামের এনামুল হককে ২ হাজার, চরধরমপুর গ্রামের আব্দুর কাদেরকে ২ হাজার, কানারহাট গ্রামের সফি মঞ্জুরের ছেলে বাবুকে ২ হাজার, কালিতলা গ্রামের রাকিবের ছেলে বেলালকে ২ হাজার, খালে আলমপুরের জামালের ছেলে রহিমুদ্দিনকে ১ হাজার টাকা মোট ৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ আইন এর ৩৯ ধারায়। এ সময় ব্যবসায়ীদের সর্তক করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট রাজিবুল আলম বলেন, প্রতিদিন সকল দ্রব্যের মূল্য তালিকা লিখে ভোক্তাদের দৃষ্টি পড়ার মত স্থানে ঝুলিয়ে রাখার নির্দেশ দেন। এ সময় ভোক্তা অধিকার আইনের মধ্যে বিভিন্ন পণ্র বিক্রয়ের ব্যাপারে মেডিকেলমোড় বাজার কমিটির সভাপতি আফরাজুল হক বাবুকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেন। এবং করোনা ভাইরাস আতঙ্ককে পূঁজি করে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম যেন না বাড়ানো হয় সে ব্যাপারে সর্তক করেন। এ সময় ভোলাহাট থানার অফিসার ইনর্চাজ নাসির উদ্দিন মন্ডল ও সঙ্গীয় র্ফৌস উপস্থিত ছিলেন।

কমেন্ট করুন