স্টাফ রিপোর্টারঃ বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে ঐতিহাসিক ৭মার্চ পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে শনিবার সকালে উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের,ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম বাবু,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জান্নাতুন নাইম মুন্নি,সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি গোলাম মোস্তফা, ৭নং পৌর ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ,৮নং পৌর ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি লিটন,সাধারন সম্পাদক মুনজুর আনসারী,উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহম্মদ বাবু,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কাবুল হোসেন,জাবির হোসেন সহ দলীয় নেতৃবৃন্দ। জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের বলেন,বাঙালি জাতির দীর্ঘ স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অনন্য দিন আজ ৭মার্চ। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) এক বিশাল জনসমুদ্রে দাঁড়িয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামের ডাক দেন। এ দিন লাখ লাখ মুক্তিকামী মানুষের উপস্থিতিতে এই মহান নেতা বজ্রকণ্ঠে ঘোষণা করেন, ‘রক্ত যখন দিয়েছি রক্ত আরো দেব, এ দেশের মানুষকে মুক্ত করে ছাড়ব ইনশাআল্লাহ। এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ী হয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় ছিনিয়ে আনে বাঙালি জাতি। এই বিজয়ের মধ্য দিয়ে বিশ্ব মানচিত্রে জন্ম নেয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ভাষণে গর্জে ওঠে উত্তাল জনসমুদ্র। লাখ লাখ মানুষের গগনবিদারী শ্লোগানের উদ্দামতায় বসন্তের মাতাল হাওয়ায় সেদিন পত্ পত্ করে ওড়ে বাংলাদেশের মানচিত্রখচিত লাল-সবুজের পতাকা। শপথের লক্ষ বজ্রমুষ্টি উত্থিত হয় আকাশে।

কমেন্ট করুন