1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. nagorikit@gmail.com : ভোলাহাটচিত্র : ভোলাহাটচিত্র
  3. bholahatchitro@gmail.com : ভোলাহাটচিত্র : ভোলাহাটচিত্র
আজ রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১২:২৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন, বিনা প্রয়োজনে বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকুন।

ভোলাহাটে ফের প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ

  • আপডেট করা হয়েছে বৃহস্পতিবার, ১ জুলাই, ২০২১
  • ৩৪৯ বার পড়া হয়েছে
ভোলাহাটে এভাবেই দায়সারা রাস্তার মাটি ভরাট কাজ। দু’পাশ ফাঁকা রেখে জনদূর্ভোগের সৃষ্টি করা হয়েছে। ছবিটি তোলা ৩০ জুন বিকেলে তোলা।

স্টাফ রির্পোটারঃ ভোলাহাটে ফের প্রকল্পে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ৩০ জুন বুধবার বিভাগীয় কমিশনার রাজশাহী বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভোলাহাট উপজেলার সদর ইউনিয়নের ফুটানীবাজার এলাকার ৫৬জন ভুক্তভুগি। লিখিত অভিযোগের বিবরণে জানা গেছে, আলালপুর(ভোলাহাট) বিজিবি ক্যাম্পের দক্ষিণে যাত্রী ছাউনি থেকে আজিজুলের গভীর নলকূপ রফিকুলের জমি পর্যন্ত রাস্তায় মাটি ভরাট করার জন্য ২০২০-২০২১ অর্থবছরে কাজের বিনিময়ে টাকা কাবিটা’র আড়াই লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। সে রাস্তার আংশিক মাটি ভরাট করে দুই পাশে প্রায় চার হাত করে আট হাত ফাঁকা রেখে দেয়। রাস্তার মধ্যস্থানে মাটি ফেলা হয়েছে যা আগের চেয়ে বর্তমানে রাস্তাটি সংকুচিত করে চলার অনুপযোগী হয়ে গেছে। ফলে জনদূর্ভোগ বেড়েছে। অভিযোগে আরও বলা হয় শ্রমিক দিয়ে কাজ না করে প্রকল্পের টাকা আত্মসাৎ করতে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ কাউছার আলম সরকার এবং প্রকল্প কমিটির যোগসাযসে ড্রেজার মেশিন দিয়ে নামমাত্র মাটি ভরাট করেছে। সরকারী নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করে দায়সারা প্রকল্পের কাজের বিবরণী সাইনবোর্ড পর্যন্ত প্রদর্শনী করা হয়নি। পাকা রাস্তা করে দেব বলে মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে ফসলি জমি নষ্ট করে সহজ-সরল মানুষদের সাথে প্রতারণা করা হয়েছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। এব্যাপারে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ কাউছার আলম সরকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, প্রকল্পটি আমি সরজমিন দেখবো বলে দায় এড়িয়ে যান। একদিকে প্রকল্প কমিটির সভাপতি রেজাউল করিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমাদের প্রকল্পের কাজ শেষ করে বিল উত্তোলন শেষ করেছি। তিনি দু’পাশ ফাঁকা রেখে মাটি ভরাট করেছেন বিষয়টি স্বীকার করেন এবং বলেন বর্ষর সময় পানিতে মাটি নেমে ভরাট পূরণ হয়ে যাবে। উল্লেখ্য এর পূর্বে অপর একটি প্রকল্প হরিলুটের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করায় অভিযোগকারীকে ২৮জুন কৌশলে অফিসে ডেকে দেড় ঘন্টাব্যাপী অবরুদ্ধ করারে রাখার অভিযোগ রয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ কাউছার আলম সরকারের বিরুদ্ধে। এমতাবস্থায় সরেজমিনে তদন্ত সাপেক্ষে বিচারবিভাগীয় ব্যবস্থার দাবি করেছেন ফুটানীবাজার এলাকাবাসী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি (Nagorikit.com)