1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. nagorikit@gmail.com : ভোলাহাটচিত্র : ভোলাহাটচিত্র
  3. bholahatchitro@gmail.com : ভোলাহাটচিত্র : ভোলাহাটচিত্র
আজ শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৯:১১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন, বিনা প্রয়োজনে বাইরে বের হওয়া থেকে বিরত থাকুন।

গোমাস্তাপুরে মাস্ক ব্যবহার ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আগ্রহ নেই

  • আপডেট করা হয়েছে বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ২০৮ বার পড়া হয়েছে

ফিরোজ কবির গোমাস্তাপুরঃ আসছে শীত বাড়ছে করোনার সংক্রমণ। করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে ঘরের বাইরে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে সরকার। নো মাস্ক নো সার্ভিস শ্লোগান । অফিস-আদালত, বাজার-ঘাট ও গণপরিবহনে মাস্ক না পরলে আছে জেল-জরিমানার বিধান। কিন্তু সব জায়গায় মাস্ক ব্যবহারে অনীহা আছে বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে। দেশের অনেক এলাকার মতো একই অবস্থা দেখা যাচ্ছে গোমাস্তাপুর উপজেলাতেও। সম্প্রতি মহানন্দা সেতু, মহাসড়কের বাসস্ট্যান্ড, রেল স্টেশন, বিভিন্ন বাজার, রহনপুর, গোমাস্তাপুরের বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন এলাকায় দেখা গেছে ফুটপাতের হকার ও দোকানগুলোতে অগণিত লোকের সমাগম। কিন্তু তাদের বেশিরভাগেরই মুখে মাস্ক নেই।
পথচারী ক্রেতা-বিক্রেতা সবারই একই অবস্থা। বাজারের বিভিন্ন খাবার হোটেলে বিক্রেতারা মাস্ক পরে বসে থাকলেও বেশিরভাগ জায়গায় নেই হাত ধোয়ার ব্যবস্থাও। অনেক দোকানেই নেই হ্যান্ড স্যানিটাইজারের । স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক ব্যবহার শতভাগ কি ভাবে নিশ্চিত করা যায় এমন প্রশ্ন অনেকের। করোনাভাইরাস বিস্তাররোধে সরকারি নির্দেশনা সকলের মেনে চলা উচিত। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ও মাস্ক ব্যবহারসহ হ্যান্ড স্যানিটাইজার বাধ্যতামূলক করা আমাদের সকলের জন্য ভালো। করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে ঘরের বাইরের সব জায়গায় মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করতে হবে। প্রয়োজনে কঠোর আইনী প্রয়োগ করতে হবে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের শুরুতে প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সচেতন নাগরিকরা গণসচেতনতার লক্ষ্যে যেভাবে কাজ করেছেন ঠিক একইভাবে বর্তমান সময়েও গণপ্রচারণা চালানো প্রয়োজন বলে মনে করেন অনেকেই। শীত মৌসুমে এমনিতেই সর্দি-কাশির প্রকোপ বাড়ে। অনেকের আবার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যায়। তার মধ্যে করোনাভাইরাসের উপক্রম চলছে। ফলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে, মাস্ক ব্যবহারে বেশি গুরুত্ব দেওয়া আব্যশক।
গোমাস্তাপুর উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক প্রচার চলছে। এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে।
অফিস,আদালতে মাস্ক ব্যবহার ব্যতীত প্রবেশ করতে নিষেধ করা হয়েছে। মাস্ক না থাকলে সেবা দেওয়া হবে না বলে দেওয়ালে লিখা আছে।
মাস্ক নেই সেবা নেই, মাস্ক পরিধান করুন সেবা নিন। এছাড়াও বিভিন্ন প্রাইভেট সেন্টার ও কোচিং সেন্টার গুলোটে ব্যবহার করা হচ্ছে না মাস্ক মানা হচ্ছেনা স্বাস্থ্যবিধি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন
ডিজাইনঃ নাগরিক আইটি (Nagorikit.com)